লিডস্বাস্থ্য ও চিকিৎসা

শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেই একজনও নারী চিকিৎসক আবার ডাক্তার সংকট

মোঃ শাহীন হাওলাদার / স্টাফ রিপোর্টার

বাগেরহাটের শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবার চিকিৎসক সংকট দেখা দিয়েছে। যোগদানের পর পরই চার জন নারী চিকিৎসক অন্যত্র চলে গেছেন। এখন একজনও নারী চিকিৎসক নেই হাসপাতালটিতে। বর্তমানে চিকিৎসক আছেন মাত্র ছয় জন। তারা সবাই পুরুষ। উপজেলার প্রায় দুই লাখ মানুষের চিকিৎসাসেবা দিতে গিয়ে হিমশিম অবস্থায় পড়েছেন তারা।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, চার জন নারী চিকিৎসকের মধ্য থেকে ডা. ইসরাত জাহান যোগদানের পর পরই বাগেরহাট সদর হাসপাতালে এবং ডা. তাহসিনা হক প্রমি এক সপ্তাহ আগে খুলনা মেডিক্যালে সংযুক্ত (অ্যাটাচমেন্ট) হয়েছেন।

অপর দুই জনের মধ্যে ডা. শাহানা এবং ডা. কেয়া মনি রয়েছেন মাতৃত্বকালিন ছুটিতে। বর্তমানে একজন নারী চিকিৎসকও নেই এখানে। আবার পূর্বের সেই সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. এস এম ফয়সাল আহমেদ জানান, সরকারি নিয়মে চাকরিতে যোগদানের পর কমপক্ষে দুই বছর নতুন চিকিৎসকদের গ্রামে থাকার বিধান রয়েছে। কিন্তু সেই নিয়ম অনেকেই মানছেন না। যে দুই জন অন্যত্র সংযুক্ত হয়েছেন, খাতাপত্রে ঠিকই তারা শরণখোলায় পোষ্টিং রয়েছেন। বেতনও তুলবেন এখান থেকে।

অথচ একটু ভালো সুযোগসুবিধা ভোগ করার আশায় উপর মহলে তদবির করে চলে গেছেন তারা। এ কারণে ডেলিভারী বা অন্যান্য নারী রোগিদের সেবা দিতে বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে। সঠিক চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে গ্রামের সাধারণ মানুষ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রিয় গোপাল বিশ্বাস বলেন, একঝাঁক তরুণ চিকিৎসক নিয়ে নতুন করে দীর্ঘদিনের সংকট কাটিয়ে উঠতে শুরু করেছিলাম। প্রায় ছয় বছর ধরে বন্ধ থাকা অপারেশন থিয়েটারটিও স্বচল করা হয়েছে। এরই মধ্যে এক সাথে চার জন নারী চিকিৎসক চলে যাওয়ায় আবার সেই সংকটে পড়েছি। প্রতিদিন শত শত রোগীর চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Alert: Content selection is disabled!!