অপরাধ ও দূর্ঘটনাসারাবাংলা

ভোলায় ২৮ টি দোকান ও বসত বাড়ি পুড়ে ছাই

ক্ষতি ৩ (তিন) কোটি টাকার

ভোলা বোরহানউদ্দিন উপজেলার মির্জাকালু খাসমহল বাজারে আগুন লেগে ১৮টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ও ১৩টি বসত ঘর সহ মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় কয়েক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় মঞ্জু’র লেপতোষক দোকানে বিদ্যুৎতের সট সার্কিট হতে এ আগুনের সূত্রপাত হয়।
ওয়ার্কসপ ব্যবসায়ী মো.মনির জানান, আগুনে পুড়ে আমার সব শেষ হয়ে গেছে। এনজিও ব্রাক হতে আড়াই লক্ষ টাকা, আশা হতে দের লক্ষ টাকা ও পদক্ষেপ হতে দের লক্ষ টাকা ঋণ নিয়ে ব্যবসায় করছি। এখন এই টাকা কিভাবে পরিশোধ করবো। মানুষেরও অনেক ধার দেনা আছি। জানি না কিভাবে আবার দোকান শুরু করবো।

লেপতোষক দোকানদার মো. মঞ্জু জানান, বৃহস্পতিবার সকালে দোকান খুলে দুইটা বালিশের কাজ করেছি। হঠাৎ আমার ছোট ভাই চিৎকার দিয়ে বলেন ভাইয়া আমাদের দোকানের টিনের ছালে আগুন। মুর্হুতের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে যায়। আমরা অনেক চেষ্টা করে আগুন নিভাতে পারি নি। পরে বোরহানউদ্দিন ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিভায়। এর মধ্যে ১৮ দোকান ও ১৩ টি বসত ঘর সহ মালামাল পুড়ি ছাই হয়ে গেছে। সে জানান তার প্রায় সাত লক্ষ টাকা ক্ষতি সাধন হয়েছে।

খাসমহল বাজার ব্যবসায়ীরা জানান, মঞ্জু’র দোকান হতে আগুন লেগে পুড়ে বাজার ছড়িয়ে গেছে। স্থানীয় ও বোরহানউদ্দিন ফায়ার সার্ভিস সহ লাল মোহন, তজুমোদ্দিন, ভোলা মোট ৭ টি ইউনিট ২ ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নিভাবে সক্ষম হয়। এর মধ্যে লেপতোষক দোকানদার মঞ্জু’র সাত লক্ষ টাকা, জাহাঙ্গীরের দুইটা ঘর পুড়ে দুই লক্ষ টাকা, শাজাহান এর মুদি দোকান পুড়ে দুই লক্ষ টাকা, মনির পিটারের ওয়ার্কসপ ও ফার্সের দোকান পুড়ে প্রায় দশ লক্ষ টাকা, মমিন ইলেকট্রনিক্স দোকান পুড়ে চার লক্ষ টাকা, টুলু দোকান ও বসত ঘর পুড়ে স্বর্ণ অলংকার সহ প্রায় বারো লক্ষ টাকা, মুদি ব্যবসায়ী মো. শামীম প্রায় দশ লক্ষ টাকা, রশিদ মাষ্টারের ঘর পুড়ে প্রায় তিন লক্ষ টাকা, মো. মিজানের ঘর পুড়ে সাত লক্ষ টাকা, মুদি দোকানদার হারুনের সাত লক্ষ টাকা, আলমগীরের ঘর ও আসবাবপত্র সহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকা, কাঠের দোকাদার রফিজলের প্রায় দুই লক্ষ টাকা, মো.শাহাবুদ্দিনের ঘর পুড়ে সাত লক্ষ টাকা, আজাদ ফাস্ট ফুট ও ৩টি ঘর সহ প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা, নিরব মিস্ত্রী’র কাঠের দোকান ও ঘর প্রায় ১০ লক্ষ টাকা, কামাল এর লেপতোষকের ৪টি দোকান ও ঘর সহ প্রায় ১৭ লক্ষ টাকা, সেলুন ব্যবসায়ী এক লক্ষ টাকা, জাহাঙ্গীর মিয়ার ২টা ঘর পুড়ে ৫ লক্ষ টাকা, বাশু চৌধুরীর দুই ঘর ও দোকান সহ প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা, জগদেস সাহার বসত ঘর পুড়ে ৫ লক্ষ টাকা, পিয়নাত বাবু ফার্মেসী ও বসত ঘর পুড়ে সাত লক্ষ টাকা, মো. জাহাঙ্গীর মেম্বারের ৩টা বসত ঘর ও ব্যবসায়ীক মালামাল পুড়ে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা, কেশব দে ফার্মেসী ও বসত ঘর পুড়ে প্রায় সাত লক্ষ টাকা, কমল দে ফলের দোকান ও বসত ঘর পুড়ে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা, মো. আলী’র দুইটা বসত ঘর পুড়ে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা ও মো. হারুনের বসত দুইটা ঘর প্রায় ৭ লক্ষ টাকা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

বোরহাউদ্দিন ফায়ার সার্ভিস ইন-চার্জ মো. রুহুল আমিন জানান, খবর পেয়ে দ্রত ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিভাতে সক্ষম হই। আগুনের সূত্রপাত একটি লেপতোষক দোকানের বিদ্যুৎতের সট সার্কিট হতে। ওই সময় ১৮টি দোকান ও বসত ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে তিন কোটি টাকার উপরে ক্ষতি সাধন হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Alert: Content selection is disabled!!