অপরাধ ও দূর্ঘটনাপ্রশাসনলিডসারাবাংলা

কাশিমপুরে অটো চালক খুনের রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার-৫

তারিকুল জুয়েল, গাজীপুরঃ গাজীপুর কাশিমপুরের লোহাকৈর মাজারের পুকুর থেকে গত ১২ ফেব্রুয়ারী অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করে কাশিমপুর থানা পুলিশ। পরে পিবিআই এর মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ভিকটিম হুমায়ুন কবিরের পরিচয় সনাক্ত করে এবং অভিযুক্ত আলমগীর (২৮), শামসুল(৩২), হাফিজুর রহমান ওরফে হাফিজ ওরফে টুকু, আল মামুন সরদার ওরফে আল আমিন(৩০) ও রফিকুুল ইসলাম রফিক (৩৪) কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খুনের কথা স্বীকার করে। তাদের দেয়া তথ্যমতে লুণ্ঠিত অটোরিক্সা, ভিক্টিমের মোবাইল, ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত সিএনজিসহ, ঝাল-মুড়ি বিক্রির উপকরণ উদ্ধার করে।
নিহত হুমায়ুন রংপুর জেলার সদর থানার কাটাবাড়ী গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর ছেলে। গাজীপুর শ্রীপুরের দেশীপাড়াস্থ এলাকায় ভাড়া থেকে অটোরিক্সা চালাত।
এক সংবাদ সম্মেলনে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ইলতুৎ ইশ জানান,
গত ০৯/০২/২০২২ তারিখে রাত ৮টার দিকে ভিকটিম হুমায়ুন অটোরিক্সা নিয়ে সালনা ব্রিজের কাছে অবস্থানকালে আসামি আল-আমিন ( ছদ্মবেশী ঝালমুড়ি বিক্রেতা ) এর কাছ থেকে ঝালমুড়ি কিনে খায় । কৌশলে আল আমিন ঝালমুড়ির সাথে ঘুমের ওষুধ (লিকুইড) মিশিয়ে নিহত অটোচালক হুমায়ুনের কাছে বিক্রি করে এবং ঝালমুড়ি খেয়ে ভিকটিম হুমায়ুন যাত্রী হিসেবে শামসুল ও টুকু কে নিয়ে শিববাড়ি মোড় থেকে কোনাবাড়ি ফ্লাইওভারের কাছে গেলে ভিকটিম অচেতন হয়ে পড়ে, এসময় আসামী শামসুল অটো এর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ভিকটিমের পকেট হতে টাকা ও মোবাইল নিয়ে যায়। অপরদিকে সিএনজি চালক আলমগীর অন্য আসামীদের নিয়ে ভিকটিমের ইজিবাইক অনুসরণ কর লোহাকৈর মাজারের নিকট আসে। পরে সবাই মিলে ভিকটিমকে পুকুরের পানিতে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়।
বরিশাল থেকে গ্রেফতারকৃত আসামী আলমগীর কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর থানার লক্ষীপুর গুচ্ছ গ্রামের খোরশেদ আলম এর ছেলে। কোনাবাড়ির আমবাগ এলাজায় ভাড়া থেকে সিএনজি চালাত ও সুযোগ বুঝে অটোরিকশা ছিনতাই করত।
শামসুল পাবনা জেলার আতাইকোলা থানার বাউখোলা ঘোনাপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।
মোঃ হাফিজুর রহমান@টুকু @হাফিজ বরিশালের উজিরপুরের বড়তা গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে।
আল-আমীনও বরিশালের উজিরপুরের গাববাড়ী গ্রামের আবদুল হাকিম সরদারের ছেলে
রফিকুল ইসলাম নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানার পালোয়া গ্রামের মৃত আবদুর রশিদের ছেলে।
গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় ভাড়া থেকে অটোরিক্সা ও সিএনজি ছিনতাই করে আসছিল।
গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা বিচারাধীন আছে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Alert: Content selection is disabled!!