জাতীয়

” কঠোর লকডাউনের ” ঘোষণায় বাড়ি ফিরার উপচে পরা ভীর

নাজমুল সাকিব ইমরান

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকার এবার কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছেন। যেহুতে সাধারন লকডাউন তেমন কার্যকর ভুমিকা রাখতে পারছে না তাই সকলকে ঘড়ে রাখতে এই লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। তাই লকডাউনের আগাম বার্তা শুনে বাড়ি ফেরার জন্য প্রতিটি বাসস্ট্যান্ডে মানুষের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ করা গেছে।

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সরকার আবারও লক ডাউন দেওয়ার আগাম ঘোষণা দিয়েছে। আসছে পহেলা জুলাই থেকে কঠোর লক ডাউন। শুধুমাএ জরুরি সেবা মূলক গাড়ি ছাড়া চলবে না কোন যানবাহন। এ দিকে লক ডাউন ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে প্রতিটি বাসস্ট্যান্ডে মানুষের উপচে পড়া ভীর বেরেই চলেছে। কারন বেশ কিছুদিন পরতে হবে এই লকডাউনের ফাদে। পরিবারের কথা চিন্তা করে এবং এই সময় যাতে গ্রামে কাটানো যায় সেজন্য ঢাকা সহ শহর ত্যাগ করতে দেখা গেছে মানুষজনকে।মানা হচ্ছে না কোন সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি । চাহিদা মত গাড়ি না থাকাতে যে যেভাবে পারছে সে সেভাবে ছুটছেন বাড়ির পথে। তেমন করে নজরে পরেনি প্রশাসনিক ব্যাবস্থা। দূরপাল্লার বাস, ট্রেন না থাকলেউ আটকে নেই মানুষের বাড়ি ফেরা। সিএনজি,অটো,ভাড়া চালিত মোটরসাইকেল দিয়ে ভেঙ্গে ভেঙ্গে যাচ্ছে তারা,,,অনেক এক সাথে হয়ে ভাড়া করছে প্রাইভেট কার। এ যেনো এক ঈদের আমেজ বিরাজ করছে প্রতিটি বাসস্ট্যান্ডে। এ বিষয় কথা হলে ইদ্রিস আলী নামে এক যাএী জানান, আমরা কি করবো বলেন? গ্রামের বাড়িতে বউ বাচ্চা মা বাবা আছে। শহরেও কত দিনের লকডাউন হয় বলা যায় না। কাজ কাম নাই। গ্রামে সবাই চিন্তা করবে, না খেয়ে থাকতে হবে। তাই বাধ্য হয়ে হলেও যেতে হচ্ছে গ্রামে। এমন যুক্তি মোটামুটি সকলের। তাই এই ভীড় ও জনসাধারণের এভাবে ঢাকা ত্যাগ প্রশ্ন রেখেই যায় তাহলে কি এদের কেও আক্রান্ত নয়? এদিকে প্রশাসনের আরো নজরদারি বারানো দরকার বলে মনে করেন সচেতন মহল।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Alert: Content selection is disabled!!